Spread the love

সবকিছু একরকম নিশ্চিতই ছিল, অপেক্ষা ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। অবশেষে এলো সেটিও। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন দেশটির সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হয়েছেন রমিজ। তিন বছরের মেয়াদে তাকে দায়িত্বটি দেওয়ার কথা সোমবার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায় পিসিবি।

এহসান মানি এই পদে আর থাকবেন না, এটা নিশ্চিত হওয়ার পর থেকে সম্ভ্যাব্য উত্তরসূরি হিসেবে রমিজই ছিলেন আলোচনায়। গত ২৭ অগাস্ট পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দ্বারা সরাসরি মনোনীত হন তিনি।

পিসিবির ৩০তম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলেন রমিজ। বোর্ড প্রধান হওয়া পাকিস্তানের চতুর্থ সাবেক ক্রিকেটার তিনি। তার আগে ইজাজ বাট, জাভেদ বুরকি ও আব্দুল হাফিজ কারদার ছিলেন পিসিবির চেয়ারম্যান।

ইএসপিএনক্রিকইনফোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকেই ক্রিকেটার ও পিসিবি অফিসিয়ালদের সঙ্গে সভা করছেন রমিজ। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পাকিস্তানের স্কোয়াড নির্বাচনেও তিনি জড়িত বলে ধারণা করা হয়। দল নিয়ে তার সঙ্গে সাবেক প্রধান কোচ মিসবাহ-উল-হক ও বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনিসের মতবিরোধের কথাও ছড়িয়ে পড়ে। দল ঘোষণার ঘণ্টা খানেক পরই দায়িত্ব ছেড়ে দেন এই দুই সাবেক ক্রিকেটার।

দায়িত্ব নিয়েই বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি রমিজ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাকি এক মাস, এখনও দলের নতুন কোচিং স্টাফ নিয়োগ দিতে পারেনি পিসিবি। বর্তমানে পিসিবির সবচেয়ে বড় আয়ের মাধ্যম পাকিস্তান সুপার লিগের সম্প্রচার ও বাণিজ্যিক স্বত্বও নবায়ন করতে হবে। একই সঙ্গে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক দলগুলোর সফরের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে।

এর আগেও বোর্ডের সঙ্গে ছিলেন পাকিস্তানকে ৫ টেস্ট ও ২২ ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেওয়া রমিজ। ২০০৩ থেকে ২০০৪ সালে পিসিবির প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ২০০৪ সালে ভারতের ঐতিহাসিক পাকিস্তান সফরকে ঝামেলা ছাড়াই সম্পন্ন করতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন। ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি প্রক্রিয়ায়ও তার ছিল বড় অবদান।

পাকিস্তানের হয়ে ৫৭ টেস্ট ও ১৯৮ ওয়ানডে খেলা রমিজ কাজ করেছেন ধারাভাষ্যকার হিসেবেও। পাকিস্তানের প্রধান ধারাভাষ্যকারদের একজন হিসেবে দেশ-বিদেশের সিরিজগুলোয় ছিলেন তিনি।

About Author

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.